Hesperian Health Guides

ভাল খাবার ভাল স্বাস্থ্য তৈরী করে: ঔষধ

কৃমির জন্য ঔষধ

খুব দীর্ঘ সময়ের জন্য কৃমি দূর করার জন্য শুধু ঔষধই যথেষ্ট নয়। ব্যক্তিগত ও জনগোষ্ঠীমূলক পরিচ্ছন্নতাও প্রয়োজনীয়। কৃমির সংক্রামণ খুব দ্রুতই পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ছড়াতে পারে, সুতরাং, একজন ব্যক্তির যদি কৃমি দেখা দেয় তবে পুরো পরিবারেরই চিকিৎসা করা বুদ্ধিমানের কাজ।

মেবেনডাজোল


মেবেনডাজোল বক্রকৃমি, চাবুককৃমি, কেঁচোকৃমি, গুড়াকৃমি (সূতাকৃমি), এবং স্ট্রঙ্গীলয়েড নামের অন্য আর একটি কৃমির বিরুদ্ধে কাজ করে। এটি হয়তো ট্রিকিনোসিসের বিরুদ্ধে কাজ করতে পারে, কিন্তু এটি এর জন্য সবথেকে ভাল ঔষধ নয়। যদিও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কদাচিৎ দেখা যায়, তবে পেটে ব্যথা বা ডাইরিয়া হতে পারে যদি ব্যক্তিটি প্রচুর পরিমাণে কৃমি দ্বারা সংক্রামিত হয়।

গুরুত্বপূর্ণNBgrnimportant.png

গর্ভাবস্থার প্রথম ৩ মাসে মেবেনডাজোল ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন, যে সময়টাই এটি বাড়ন্ত শিশুর ক্ষতি করতে পারে। এক বছরের নীচে শিশুকে এটি খাওয়াবেন না।

কিভাবে ব্যবহার করতে হয়NBgrnpill.png
গুড়াকৃমির জন্য
১ বছর থেকে প্রাপ্তবয়ষ্ক: ১বার ১০০ মিগ্রা মুখে খাওয়ান। প্রয়োজনে ২ সপ্তাহ পরে আবার একবার খাওয়ান।

কেঁচোকৃমির (এ্যাসকারিস), চাবুককৃমি (ট্রিচুরিস) এবং বক্রকৃমির জন্য
১ বছর থেকে প্রাপ্তবয়ষ্ক: দিনে ২বার করে ১০০ মিগ্রা করে ৩দিন খাওয়ান (সর্বমোট ৬টি বড়ি)। বা
একটি ৫০০মিগ্রার বড়ি শুধু একবারের জন্য।

যেখানে এই সংক্রামণ সচরাচর দেখা যায় সেখানে কেঁচোকৃমি দূর করতে
১ বছর থেকে প্রাপ্তবয়ষ্ক: প্রতি ৪ থেকে ৬ মাস পর পর ৫০০মিগ্রা দিন।

ট্রিকিনোসিসের জন্য
১ বছর থেকে প্রাপ্তবয়ষ্ক: দিনে ৩বার করে ২০০ থেকে ৪০০ মিগ্রা ৩দিন পর্যন্ত খাওয়ান। তারপর আরও ১০দিন পর্যন্ত দিনে ৩বার করে ৪০০ থেকে ৫০০ মিগ্রা করে দিন। যদি ব্যথা বা দেখার সমস্যা থাকে তবে তাকে স্টেরয়েড দিন, উদাহরণস্বরূপ প্রতিদিন ৪০ থেকে ৬০ মিগ্রা প্রেডনিসোলন ১০ থেকে ১৫ দিনের জন্য খাওয়ান।

এ্যালবেনডাজোল


এ্যালবেনডাজোল মেবেনডাজোলের মতোই, কিন্তু প্রায়শই এটি উচ্চমূল্যের হয়ে থাকে। একটি বক্রকৃমি, চাবুককৃমি, কেঁচোকৃমি, গুড়াকৃমি, এবং ট্রিকিনোসিসের বিরুদ্ধে কাজ করে। পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কদাচিৎ দেখা যায়।

গুরুত্বপূর্ণNBgrnimportant.png

গর্ভাবস্থার প্রথম ৩ মাসে মেবেনডাজোল ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন, যে সময়টাই এটি বাড়ন্ত শিশুর ক্ষতি করতে পারে। এক বছরের নীচে শিশুকে এটি খাওয়াবেন না।

কিভাবে ব্যবহার করতে হয়NBgrnpill.png
গুড়াকৃমি, কেঁচোকৃমির (এ্যাসকারিস), চাবুককৃমি (ট্রিচুরিস) এবং বক্রকৃমির জন্য
১ থেকে ২ বছর: একবার ২০০মিগ্রার বড়ি দিন।
2২ থেকে প্রাপ্তবয়স্ক: একবার ৪০০ মিগ্রার বড়ি খাওয়ান। প্রয়োজনে ২ সপ্তাহ পর আবার খাওয়ার।

ট্রিকিনোসিসের জন্য
১ বছর থেকে প্রাপ্তবয়ষ্ক: ৮-১৪ দিন পর্যন্ত দিনে ২বার করে ৪০০ মিগ্রা। যদি ব্যথা বা দেখার সমস্যা থাকে তবে তাকে স্টেরয়েড দিন, উদাহরণস্বরূপ প্রতিদিন ৪০ থেকে ৬০ মিগ্রা প্রেডনিসোলন ১০ থেকে ১৫ দিনের জন্য খাওয়ান।

পাইরেনটেল পামোয়েট, পাইরেনটেল এমবোনেট


পাইরেনটেল গুড়াকৃমি, বক্রকৃমি, এবং কেঁচোকৃমির (এ্যাসকারিস) বিরুদ্ধে কাজ করে, কিন্তু হয়তো উচ্চমূল্যের হতে পারে। এর ফলে মাঝেমধ্যে বমি, মাথা ঘুরানো, বা মাথাব্যথা হতে পারে। যারা পিপারাজাইন (অন্য আর একটি কৃমি-নাশক ঔষধ) নিচ্ছে এমন কাউকে এটি খাওয়াবেন না।

কিভাবে ব্যবহার করতে হয়NBgrnpill.png

বক্রকৃমি এবং কেঁচোকৃমির জন্য একবার মাত্র খাওয়ান।
গুড়া কৃমির জন্য একবার খাওয়ান, তারপর ২ সপ্তাহ অপেক্ষা করুন, তারপর আর একবার খাওয়ান।

প্রতি কেজিতে ১০ মিগ্রা খাওয়ান। সুতরাং:
২ বছরের নীচে: ৬২ মিগ্রা খাওয়ান (২৫০ মিগ্রা বড়ির ১/৪)।
২ থেকে ৫ বছর: ১২৫ মিগ্রা খাওয়ান (২৫০ মিগ্রা বড়ির ১/২)।
৬ থেকে ৯ বছর: ২৫০ মিগ্রা বড়ি খাওয়ান (একটি ২৫০ মিগ্রা বড়ি)।
১০ থেকে ১৪ বছর: ৫০০ মিগ্রা বড়ি খাওয়ান (দু’টি ২৫০ মিগ্রা বড়ি)।
১৪ বছরের উপরে: ৭৫০ মিগ্রা বড়ি খাওয়ান (তিনটি ২৫০ মিগ্রা বড়ি)।

ফিতাকৃমির জন্য

বেশ কয়েক ধরনের ফিতাকৃমি আছে। প্রাজিকোয়ান্টেল বা নিক্লোসামাইড সকল ধরনের জন্যই কাজ করে। ফিতাকৃমির সংক্রামণ যদি মস্তিষ্কে হয় বা খিঁচুনীর সৃষ্টি করে তবে ব্যক্তিটির এর পরিবর্তে এ্যালবেনডাজোল এবং খিঁচুনী-রোধী ঔষধ প্রয়োজন, এবং তার সাহায্য গ্রহণ করা উচিত।

প্রাজিকোয়ান্টেল


পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াGreen-effects-nwtnd.png

প্রাজিকোয়ান্টেল ক্লান্তি, মাথাঘুরানো, মাথাব্যথা, ক্ষুধামন্দা, এবং বমি বমি ভাব ঘটাতে পারে, কিন্তু এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ফিতাকৃমির চিকিৎসায় ব্যবহৃত স্বল্প মাত্রায় কদাচিত দেখা যায়।

কিভাবে ব্যবহার করতে হয়NBgrnpill.png
গরু ও শুকরের ফিতাকৃমিসহ বেশীরভাগ ধরনের ফিতাকৃমির জন্য
প্রতি কেজিতে মাত্র একবার ৫ থেকে ১০ মিগ্রা ব্যবহার করুন। অথবা বয়স অনুসারে নীচের মাত্রা খাওয়ান:
৪ থেকে ৭ বছর: ১৫০ মিগ্রা খাওয়ান (১/৪ বড়ি), একবার মাত্র।
৮ থেকে ১২ বছর: ৩০০ মিগ্রা দিন, একবার মাত্র।
১২ বছরের উপরে: ৬০০ মিগ্রা দিন, একবার মাত্র।
খর্বকায় ফিতাকৃমির জন্য (এইচ ন্যানা)
প্রতি কেজিতে ২৫ মিগ্রা ব্যবহার করুন। তারপর ১০ দিন পর আবারও একই মাত্রা অনুসরণ করুন। বা বয়স অনুযায়ী নীচের মাত্রা খাওয়ান:
৪ থেকে ৭ বছর: প্রতিবার ৩০০ থেকে ৬০০ মিগ্রা (১/২ থেকে ১টি বড়ি)।
৮ থেকে ১২ বছর: প্রতিবার ৬০০ থেকে ১২০০ মিগ্রা।
১২ বছরের উপরে: প্রতিবার ১৫০০ মিগ্রা করে।

নিক্লোসেমাইড


নিক্লোসেমাইড অন্ত্রের ভিতরে ফিতাকৃমির বিরুদ্ধে কাজ করে, কিন্তু অন্ত্রের বাইরে পুঁজকোষের বিরুদ্ধে কাজ করে না।

কিভাবে ব্যবহার করতে হয়NBgrnpill.png
সকালের হাল্কা নাস্তার পর নিক্লোসেমাইড নিন। বড়িগুলোকে ভালভাবে চিবিয়ে গিলে খেতে হবে। ফিতাকৃমির ধরনের উপর নির্ভর করে মাত্রার ব্যাসকম হতে পারে, তাই আপনার স্থানীয় স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ্যের পক্ষ থেকে হয়তো ভাল পরামর্শ থাকতে পারে। যদি না থাকে তবে, নীচের মাত্রা ব্যবহার করুন।
,br>নীচের মাত্রাগুলো ভাল করে চিবিয়ে গিলে ফেলুন। যদি, ছোট শিশু এখনো চিবাতে না পারে, তবে বড়িগুলোকে গুড়ো করে সামান্য বুকের দুধ বা খাবারের সাথে মিশ্রণ করুন।
দুই বছরের নীচে: একবার মাত্র ৫০০মিগ্রা বড়ি খাওয়ান।
দুই থেকে ৬ বছর: একবার মাত্র ১ গ্রাম (১০০০মিগ্রা) বড়ি খাওয়ান।
৬ বছরের উপরে: একবার মাত্র ২ গ্রাম বড়ি খাওয়ান।


এই পাতাটি হালনাগাদ করা হয়েছে: ৩১ জুলাই ২০২১