Hesperian Health Guides

হেপাটাইটিস বি ও হেপাটাইটিস সি

হেপাটাইটিস যকৃতের একটি প্রদাহ, বেশীরভাগ সময়ই একটি ভাইরাসের কারণে এটি হয়ে থাকে। অনেক ধরনের হেপাটাইটিস দেখা যায় কিন্তু হেপাটাইটিস বি ও হেপাটাইটিস সি যৌনকর্ম বা রক্তের মাধ্যমে ছড়াতে পারে। হেপাটাইটিস বি খুব সহজেই এক ব্যক্তি থেকে অন্য ব্যক্তিতে বাহিত হতে পারে, বিশেষ করে যৌনসঙ্গমের সময়। হেপাটাইটিস সি রক্তের সংস্পর্শের মাধ্যমে ছড়ানোর সম্ভাবনা বেশী এবং শুধুমাত্র যৌনসঙ্গমের মাধ্যমে ছড়ানোর সম্ভাবনা কম। ঋতুস্রাবের সময় যৌনসঙ্গম বা যখন বিশেষ করে এইচআইভি-এর মতো অন্য আর একটি এসটিআই থাকে তখন যৌনসঙ্গমের মাধ্যমে হেপাটাইটিস সি ছড়ানোর সম্ভাবনা সবথেকে বেশী। হেপাটাইটিস বি ও সি যকৃতের স্থায়ী ক্ষতি (সিরোসিস), যকৃতের ক্যান্সার, এবং এমনকি মৃত্যুও ঘটাতে পারে। এইচআইভি/এইডসযুক্ত ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে মৃত্যুর একটি বড় কারণ হচ্ছে হেপাটাইটিস সি।

হেপাটাইটিস বি ও সি উভয়ই গর্ভে থাকা একটি শিশুর মধ্যে বাহিত হতে পারে।

একজন পুরুষের একটি অঙ্কন যেখানে তার যকৃতের একটি রূপরেখা দেয়া হয়েছে
যকৃৎ
হেপাটাইটিস বি ও হেপাটাইটিস সি কোন লক্ষণ দেখা নাও যেতে পারে কিন্তু এই সংক্রমণগুলো যকৃতের সঙ্কটজনক ক্ষতির সৃষ্টি করে।
হেপাটাইটিস বি-এর লক্ষণ
  • ক্ষুধা মন্দা
  • ক্লান্ত ও দুর্বল বোধ
  • হলুদ চোখ ও কোন কোন সময় হলুদ ত্বক (বিশেষভাবে হাতের তালুতে এবং পায়ের পাতার তলায়)
  • পেটে ব্যথা বা বমি বমি ভাব
  • বাদামী, কোলা-রঙয়ের মূত্র, সাদাটে মল
হেপাটাইটিস সি-এর লক্ষণ

হেপাটাইটিস বি-এর লক্ষণের মতোই বা সংক্রামিত হওয়ার অনেক বছর না যাওয়া পর্যন্ত কোন লক্ষণই হয়তো নাও দেখা যেতে পারে।

পরীক্ষা করার আগে অনেক ব্যক্তি জানেও না যে তাদের এটি আছে।

চিকিৎসা

এখন হেপাটাইটিস বি ও সি-এর চিকিৎসার জন্য ঔষধ পাওয়া যায়, এবং হেপাটাইটিস সি নিরাময়ও করা যায়। হেপাটাইটিস সি থেকে একবার নিরাময় লাভ করলেই আপনি এর সংস্পর্শে আসলে এটিতে আবারও আপনার আক্রান্ত হওয়া রোধ করবে না। স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষা করে আপনার কোন ধরনের হেপাটাইটিস রয়েছে এবং কোন কোন ঔষধ পাওয়া যায় তা জানুন। এমনকি ঔষধ না থাকলেও প্রচুর পরিমাণে বিশ্রাম, এবং ফলের রস, পাতলা ঝোল বা সব্জির স্যুপ গ্রহণ করে আপনি ভাল অনুভব করতে পারেন এবং আপনার যকৃৎ সেরে ওঠায় সাহায্য করতে পারেন। বমি বমি ভাব এবং বমি দুর করার জন্য সোডা, আঁদার পানীয়, বা ক্যামোমাইলের মতো চা পান করুন। তবে কোন মদ জাতীয় পানীয় পান করবেন না। এমনকি সামান্য পরিমাণে মদ আপনার যকৃতের আরও ক্ষতি করবে এবং আপনি আরও খারাপ অনুভব করবেন। প্যারাসিটামল (এ্যসেটামিনোফেন বা টাইলেনল) বা অন্যান্য ঔষধ যেগুলোর মধ্যে এটি একটি উপদান হিসেবে আছে, ব্যবহার করবেন না, কারণ এটি প্রদাহময় যকৃতের জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে। প্রয়োজন হলে, তার পরিবর্তে ইবুপ্রোফেন বা এ্যাসপিরিন নিন। পেট ব্যথা, ডাইরিয়া, এবং কৃমি, অধ্যায়গুলোতে হেপাটাইটিসযুক্ত যকৃতের যত্ন নেয়া সম্পর্কে আরও তথ্য দেয়া আছে।

প্রতিরোধ

যৌনকর্মের সময় সর্বদাই কনডম ব্যবহার করুন, এবং মাদক প্রবিষ্ট করার সময় সূঁই বা অন্যান্য দ্রব্য ভাগাভাগি করবেন না। উল্কি আঁকার জন্য নতুন কালি ব্যবহার করুন এবং ত্বকে উল্কি আঁকা, ক্ষতচিহ্ন সৃষ্টি করা, ছিদ্র করা, বা ত্বক কাটার জন্য ব্যবহৃত যন্ত্রগুলোকে নির্বীজন করার বিষয়টি নিশ্চিত করুন কারণ হেপাটাইটিস সি ভাইরাস একটি খোলা পৃষ্ঠে বা তরল পদার্থের মধ্যে ৩ সপ্তাহ বাঁচতে পারে। হেপাটাইটিস সি অন্যের দাঁতের ব্রাশ বা ক্ষুর ব্যবহার করার মাধ্যমেও ছড়াতে পারে। আপনার এগুলো অন্য ব্যক্তিদেরকেও ব্যবহার করতে দেবেন না।

যে টীকা হেপাটাইটিস বি রোধ করে তা নবজাতকদের জন্য ৩টি ক্রমের একটি ইঞ্জেকশান, যা সাধারণতঃ তাদের জীবনের প্রথম ৬ মাসের সময় অন্যান্য টীকা দেয়ার সময় দেয়া হয়। মাকে যদি টীকাদান করা হয় তবে জন্মের সময় শিশুটি এই ভাইরাস আক্রান্ত হবে না। বয়স্ক শিশু এবং প্রাপ্ত বয়স্ক যারা নবজাতক হিসেবে টীকা গ্রহণ করেনি তারা এখনও টীকা নিতে পারে।



এই পাতাটি হালনাগাদ করা হয়েছে: ০২ অক্টো ২০২২