Hesperian Health Guides

উচ্চ রক্ত চাপ কী?

NWTND heart Page 5-1.png

একজন ব্যক্তির রক্ত চাপ পরিমাপ করলে সারা দেহে রক্ত পাঠাতে এবং আবার হৃৎপিণ্ডে ফেরত পাঠাতে হৃৎপিণ্ডের কতটা বল প্রয়োগ করতে হয় তা জানা যায়। সারা দিনে শরীর চর্চা, খাওয়া, অনুভূতি ইত্যাদির উপর নির্ভর করে রক্ত চাপ ওঠা নামা করা স্বাভাবিক। কিন্তু বেশীরভাগ সময়ই উচ্চ রক্ত চাপ থাকাটা স্বাস্থ্যকর নয়। হৃৎপিণ্ড যে অতিরিক্ত কাজ করছে তার চিহ্ন হলো উচ্চ রক্ত চাপ (এটাকে হাইপারটেনশনও বলা হয়)।

মানুষের উচ্চ রক্ত চাপ থাকলে তা কমানোর মাধ্যমে তাদের আরও দীর্ঘ সময় বাঁচতে সাহায্য করা যায়। রক্ত চাপ কমানোর জন্য মাঝে মাঝে ঔষধ প্রয়োজন হয় কিন্তু উচ্চ রক্ত চাপ বেশীরভাগ সময়ই স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া, কম লবন খাওয়া, এবং শরীর চর্চা করার মাধ্যমে কমানো যায়। তামাক এবং মদ খাওয়া ছেড়ে দিলেও অনেক সাহায্য হয়। এবং ব্যক্তির ডায়াবেটিসের চিকিৎসা করালেও তাদের হৃৎপিণ্ডের যত্ন নেয়া হবে। রক্ত চাপ কমানো অনেক উপায় আছে

কোন কোন সময়ে একজন ব্যক্তির কেন উচ্চ রক্ত চাপ হয়েছে তার কোন পরিষ্কার কারণ পাওয়া যায় না। ব্যক্তির বয়স বাড়তে থাকলে ক্রমশই তাদের রক্ত চাপ বাড়তে থাকে যেহেতু তাদের ধমনীগুলো বয়েসের কারণে অনমনীয় হতে থাকে। কোন কোন নারীর জন্য গর্ভধারণ রক্ত চাপ বৃদ্ধি করে। উচ্চ রক্ত চাপ বংশানুক্রমিক হতে পারে, মানে আপনার মা-বাবার বা অন্য নিকট আত্মিয়ের এই সমস্যা থেকে থাকে, তবে তা আপনার জন্য একটি সমস্যা হতে পারে।

রক্ত চাপ যখন খুবই উঁচু

১৪০/৯০-এর বেশী রক্ত চাপ নিয়মিতভাবে থাকলে তকে উঁচু রক্ত চাপ বলে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু একজন ব্যক্তির যদি অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যা থাকে, তবে তার গ্রহণযোগ্য রক্ত চাপের পরিমাপ উঁচু বা নীচু হতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, ব্যক্তির বয়স বাড়তে থাকলে রক্ত চাপের পরিমাণ সামান্য বেড়ে যাওয়া স্বাভাবিক, এবং তা অন্য কোন স্বাস্থ্য সমস্যা নেই এমন ব্যক্তির জন্য কোন সমস্যা নাও হতে পারে। রক্ত চাপ যদি নিয়মিতভাবে ১৩০/৮০ এর উপরে হয় বা ক্রমশ বাড়তে থাকে তবে এটিকে ভিন্ন উপায়ে কমানোর চেষ্টা করুন এবং রক্ত চাপ পরিমাপ করা অব্যহত রাখুন ও কোন উপায়টি ভাল কাজ করে তা যাচাই করুন।

সাধারণতঃ উচ্চ রক্ত চাপযুক্ত একজন ব্যক্তি কোন লক্ষণ দেখতে পাবে না যতক্ষণ পর্যন্ত না তার রক্ত চাপ অতিরিক্ত বেশী হয়। দুর্ভাগ্যজনক যে কোন লক্ষণ না দেখা যাওয়ার মানে কোন ক্ষতি নেই তা নয়। আপনার উচ্চ রক্ত চাপ আছে কিনা তার জানার একমাত্র উপায় হলো তা পরিমাপ কর।

NWTND heart Page 7-1.png

উচ্চ রক্ত চাপ এবং গর্ভধারণ

প্রতিবার স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসলে স্বাস্থ্যাকর্মী ও ধাত্রীরা সাধারণতঃ গর্ভবতী নারীদের রক্ত চাপ পরিমাপ করে থাকে। নারীর রক্ত চাপ গর্ভাবস্থার প্রথম ৬ মাস সময়ে সাধারণের থেকে সামান্য কম থাকাটা স্বাভাবিক ও স্বাস্থ্যকর। স্বাস্থ্যকর রক্ত চাপ সাধারণতঃ ৯০/৬০ এবং ১৪০/৯০ এর মধ্যে থাকে এবং গর্ভাবস্থায় খুব বেশী বাড়ে না। গর্ভাবস্থায় উচ্চ রক্ত চাপ কম রক্ত সংবাহিত করে। যার ফলে বেড়ে ওঠা শিশুর কাছে খাবার কম পৌঁছায়, ফলে শিশুটির বৃদ্ধি হয়তো খুব ধীর হতে পারে।

উপরের সংখ্যার ক্ষেত্রে রক্ত চাপের পরিমাপ ১৪০ থেকে ১৫০এর মধ্যে হলে বা নীচের সংখ্যার ক্ষেত্রে ৯০ থেকে ১০০ মধ্যে হলে হলে তা কোন ঔষধ ছাড়াই নারীটিকে বেশী করে বিশ্রাম করিয়ে ও তার বাঁ পাশে কাত হয়ে শুয়ে থাকার মাধ্যমে চিকিৎসা করা যায়। আরও গুরুতর স্বাস্থ্য সমস্যার চিহ্নগুলোর মধ্যে আছে ঘন শ্বাস, বুকে ব্যথা, বা উচ্চ রক্ত চাপ। গর্ভাবস্থায় উচ্চ রক্ত চাপ প্রি-এক্লাম্পশিয়ার লক্ষণ হতে পারে, যা একটি জরুরী অবস্থা যার কারণে শিশু অকালজাত হতে পারে, রক্তক্ষরণ, খিঁচুনী, এমনকি মৃত্যুও হতে পারে।

রক্ত চাপ কখন অতিরিক্ত নীচু?

৯০ (সিষ্টোলিক) ও ৬০ (ডায়াষ্টোলিক) থেকে কম রক্ত চাপকে সাধারণতঃ নীচু রক্ত চাপ হিসেবে ধরা হয়। কোন কোন ব্যক্তির নীচু রক্ত চাপে কোন সমস্যাই হয় না। কিন্তু যদি মাথা ঝিমঝিম করে বা সংজ্ঞাহীনতা দেখা দেয় তবে নীচু রক্ত চাপের চিকিৎসা করা প্রয়োজন হবে। নীচু রক্ত চাপ জলশূন্যতা বা অন্যান্য সমস্যার লক্ষণ হতে পারে। নীচু রক্ত চাপের কারণ বের করে তার চিকিৎসা করাটা গুরুত্বপূর্ণ।

রক্ত চাপ যখন খুব দ্রুত নেমে যায় আর সাথে অন্যান্য চিহ্ন যেমন বিভ্রান্তি, ঠাণ্ডা ঘাম ঝরা, বা দুর্বল, দ্রুত নাড়ি চলা দেখা যায় তখন তা হয়তো শক নামের একটি জরুরী অবস্থা হতে পারে। একবার শক শুরু হলে সাধারণতঃ দেহ সম্পূর্ণভাবে কাজ করা বন্ধ করে দেবার আগ পর্যন্ত খুব দ্রুত অবনতি হতে থাকে। একজন ব্যক্তির জীবন বাঁচাতে দ্রুত শক-এর চিকিৎসা করুন।

আপনার রক্তচাপ পরীক্ষা করা গুরুত্বপূর্ণ

Bn NWTND heart Page 8-1.png

রক্ত চাপ পরিমাপক যন্ত্র দিয়ে যে কেউই রক্ত চাপ পরিমাপ করতে পারে। সাধারণতঃ স্বাস্থ্য কর্মীরা আপনি প্রতিবার স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আসলে আপনার রক্ত চাপ পরিমাপ করতে পারে, কিন্তু আপনি কোন ঔষধের দোকানে বা আপনার বসবাসের এলাকার বা কর্মক্ষেত্রের কোন স্বাস্থ্য প্রসার বিষয়ক কোন অনুষ্ঠানে গিয়ে আপনার রক্ত চাপ পরীক্ষা করতে পারেন। আপনার রক্ত চাপের পরিমাপ লিখে রাখুন যাতে এটি পরিবর্তন হচ্ছে কিনা তা দেখতে পারেন।

আপনার যদি রক্ত চাপ মাপার যন্ত্র থাকে, তবে আপনি ঘরে বসেই আপনার নিজের রক্ত চাপ পরিমাপ করতে পারবেন। রক্ত চাপ মাপার যন্ত্র একধিক ব্যক্তি নিরাপদে ব্যবহার করতে পারে।

হৃদরোগ যে হতে যাচ্ছে বা ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে তার একটি সতর্কীকরণ লক্ষণ হচ্ছে উচ্চ রক্ত চাপ। যত সময় যায় বর্ধিত চাপ আপনার দেহের অঙ্গগুলোর ক্ষতি করে এবং হার্ট এ্যাটাক, হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হওয়া, বৃক্কের রোগ, এবং চোখের ক্ষতি ঘটাতে পারে। আপনি যখন নিজেই আপনার রক্ত চাপ পরিমাপ করতে শিখবেন তখন দেখবেন যে কিভাবে শরীর চর্চা করা ও স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া কিভাবে আপনার রক্ত চাপের উন্নতি হতে সাহায্য করছে।




এই পাতাটি হালনাগাদ করা হয়েছে: ১২ মে ২০২১