Hesperian Health Guides

কোলেষ্টেরল এবং আপনার হৃৎপিণ্ড

কোলেষ্টেরল পুষ্টিযুক্ত একটি মোমজাতীয় তরল পদার্থ যা দেহের প্রয়োজন। আপনার দেহ কিছু পরিমাণ কোলেষ্টেরল তৈরী করে এবং আরও কিছু পরিমাণ আপনার খাওয়া খাবার থেকে নেয়। কিন্তু অতিরিক্ত কোলেষ্টেরল আপনার শিরার মধ্যে জমে যেতে পারে, ফলে উচ্চ রক্ত চাপ, হার্ট এ্যাটাক, এবং স্ট্রোক হবার সম্ভাবনা দেখা দিতে পারে। রক্ত চলাচল বন্ধ করে দিয়ে মারাত্মক রক্ত জমাট ও স্ফীতির সৃষ্টি করার মাধ্যমে কোলেষ্টেরল এই কাজটি করে।

একটি রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে কোলেষ্টেরলের মাত্রা পরীক্ষা করা হয়। ২টি মূল ধরনের কোলেষ্টেরল দেখতে পাওয়া যায়:

  • এলডিএল বা 'খারাপ' কোলেষ্টেরল। যখন মানুষকে বলা হয় যে তাদের উচ্চ মাত্রায় কোলেষ্টেরল আছে তার মানে হলো তাদের এলডিএর-এর মাত্রা অনেক উঁচু।
  • এইচডিএল বা 'ভাল' কোলেষ্টেরল। এটি আপনার রক্ত থেকে খারাপ কোলেষ্টেরল বের করে দিয়ে আপনাকে হৃদরোগ, হার্ট এ্যাটাক, এবং স্ট্রোক থেকে রক্ষা করে।


কোলেষ্টেরলের মাত্রাকে অনেক কিছুই প্রভাবিত করে। উদাহরণস্বরূপ, মানুষের বয়স বাড়তে থাকলে এলডিএল (খারাপ) কোলেষ্টেরল বাড়তে থাকে। এছাড়াও, দেখা যায় যে উচ্চ মাত্রার এলডিএল কোলেষ্টেরল থাকা একটি বংশানুক্রমিক বিষয়। আপনি খারাপ কোলেষ্টেরলকে কমাতে বেশীরভাগ সময়েই:

NWTND heart Page 16-1.png
  • যে পরিমাণ ও ধরনের চর্বি খান তা সীমিত করতে পারেন। ভাজার পরিবর্তে মাংস ও সব্জি জলে সেদ্ধ করে, বা গ্রীলের উপরে আগুনে ঝলসে, বা বেক করে রান্না করুন।
  • আরও বেশী করে ফল, সব্জি, শুঁটি জাতীয় খাবার, এবং পূর্ণ শস্যদানা খাওয়া সাহায্য করবে কারণ এই খাবারগুলোর মধ্যে আঁশ আছে যা দেহ খারাপ কোলেষ্টেরলে মাত্রা কমাতে ব্যবহার করে থাকে।
  • ওজন কমানোর মাধ্যমে প্রায়শই কোলেষ্টেরলের উন্নতি করা যায়। অনেক ভারী বা অরিতিক্ত ওজন থাকলে তা হয় না।
  • শরীর চর্চা কোলেষ্টেরল নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। অনেক সময় বসে থাকা নয়।


যেহেতু কোলেষ্টেরলের কারণে আপনি অসুস্থ্য অনুভব করবেন না তাই কোলেষ্টেরল (লিপিড প্যানেল) পরিমাপ করার জন্য রক্ত পরীক্ষা করাই একমাত্র উপায় যার মাধ্যমে আপনার যে এই সমস্যাটি আছে তা জানতে পারবেন। ডায়াবেটিস আছে এমন ব্যক্তিদের কোলেষ্টেরল নিয়ে আরও সমস্যা থাকতে পারে।

উচ্চ কোলেষ্টেরলের মাত্রা এবং কী করা যায়

উচ্চ কোলেষ্টেরল যখন আপনার হৃৎপিণ্ডের ক্ষতি করে এমন অন্যান্য অবস্থা যেমন উচ্চ রক্ত চাপ, অতিরিক্ত মানসিক চাপ, বা ডায়াবেটিসের সাথে যুক্ত হয় তখন আরও মারাত্মক হয়। আপনি স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস এবং আরও বেশী শরীর চর্চা করার মাধ্যমেএই সব সমস্যারই উন্নতি করতে পারবেন। কিন্তু আপনি যদি এই পরিবর্তনগুলো ইতোমধ্যেই করে থাকেন তারপরও আপনার কোলেষ্টেরলের মাত্রা অনেক বেশী থাকে তবে আপনার ঔষধ নেয়ার প্রয়োজন হবে। স্ট্যাটিন নামে ডাকা হয় এমন এক ধরনের ঔষধ দেহে কোলেষ্টেরল তৈরী করা বন্ধ করে দেয় এবং রক্ত থেকে সকল এলডিএল (খারাপ) কোলেষ্টেরল সরিয়ে দেয়। এরকম একটি সচরাচর ব্যবহৃত স্টাটিন-এর নাম সিমভাস্ট্যাটিন

ডায়াবেটিসযুক্ত ব্যক্তি এবং যাদের ইতোমধ্যেই একবার হার্ট এ্যাটাক বা একবার স্ট্রোক হয়েছে তাদেরকে স্ট্যাটিন দেয়া হয়। এই অবস্থাগুলোর ক্ষেত্রে স্ট্যাটিন হৃৎপিণ্ডের জরুরী অবস্থা রোধ করতে পারে।

আপনি যদি গর্ভবতী হন বা মনে করেন যে শীর্ঘই আপনি গর্ভধারণ করবেন তবে স্ট্যাটিন ব্যবহার করবেন না, কারণ এগুলো গর্ভের শিশুটির জন্য বিপজ্জনক।



এই পাতাটি হালনাগাদ করা হয়েছে: ১৩ মে ২০২১