Hesperian Health Guides

ডেঙ্গু, পীত জ্বর, জিকা, এবং চিকুনগুনিয়া

হেসপেরিয়ান স্বাস্থ্যউইকি > নতুন যেখানে ডাক্তার নেই > ডেঙ্গু, পীত জ্বর, জিকা, এবং চিকুনগুনিয়া

ডেঙ্গু, পীত জ্বর, জিকা, এবং চিকুনগুনিয়া হলো ভিন্ন ভিন্ন রোগ, এর প্রতিটি একটি ভিন্ন ভাইরাসের কারণে হয়। এগুলো সাদা পটিযুক্ত বা সোনালী রংয়ের ফুটকিযুক্ত ও ডোরাকাটা পা-ওয়ালা কালো মশার দ্বারা ছড়ায়। এর মধ্যে দু'টি হলো পীত জ্বরের মশা (এডিস এজিপ্টি) এবং এশিয় বাঘ মশা (এডিস এলবোপিকটাস)। এগুলো সাধারণতঃ দিনের বেলায় কামড়ায় বিশেষ করে খুব ভোরে এবং শেষ দুপুরের দিকে, এবং যেখানে মানুষ জল সংরক্ষণ করে এবং যেকোন জায়গা যেখানে জল জমে সেখানে বংশবৃদ্ধি করে। এই মশাগুলো সাধারণতঃ ঘরের মধ্যে বা কাছাকাছি বাস করে এবং সাধারণতঃ ছায়াযুক্ত, অন্ধকার জায়গা যেমন টেবিল বা বিছানার নীচে, বা অন্ধকার কোণাগুলোতে থাকে। যদি জিকা, ডেঙ্গু এবং চিকুনগুনিয়ার সবগুলোই আপনার এলাকায় থাকে তবে একজন ব্যক্তি কোন ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে তা বলা কঠিন হতে পারে।

ডোরাকাটা পাসহ একটি মশা
এই মশা অনেক অসুস্থতার সৃষ্টি করে। এর পাগুলো সাদাকালো ডোরাকাটা।

ডেঙ্গু, পীত জ্বর, জিকা, এবং চিকুনগুনিয়ার সাধারণ লক্ষণগুলো সম্পর্কে জানুন। এর যে কোন একটি জ্বর এবং শরীরে ব্যথার সৃষ্টি করতে পারে। কিন্তু কোন কোন ব্যক্তির কোন লক্ষণ একেবারেই দেখা যায় না। যতক্ষণ না তারা একটি রক্ত পরীক্ষা করে নিশ্চিত হচ্ছে যে তাদের এই অসুস্থ্যতাটি আছে ততক্ষণ তারা জানতে নাও পারে যে তারা অসুস্থ্য হয়েছে। আপনার যদি কোন লক্ষণ নাও থাকে তবুও নতুন করে মশা কামড় দিলে সেই মশা যদি আবার অন্যদেরকে কামড়ায় তবে এই রোগটি অন্যদের মধ্যে ছড়াবে।

ডেঙ্গু, পীতজ্বর, জিকা, এবং চিকনগুনিয়ার চিকিৎসা একই রকম

বেশীরভাগ সময়ই মশা থেকে ছড়ানো এই ৪টি ভাইরাসের অসুস্থ্যতার চিকিৎসা ঘরেই করা হয়, কিন্তু শিশুদের ক্ষেত্রে, বৃদ্ধ ব্যক্তি বা এইচআইভিযুক্ত ব্যক্তি, বা ৪০#176; (১০৪#176;ফা) উপরে জ্বরসহ যে কোন বিপদচিহ্নের ক্ষেত্রে একজন স্বাস্থ্য কর্মীর সাথে দেখা করুন।

ডেঙ্গু, পীত জ্বর, জিকা, বা চিকুনগুনিয়া ভাল করার কোন ঔষধ নেই। এগুলো বিছানায় শুয়ে বিশ্রাম নেয়া, প্রচুর পরিমাণে জল এবং অন্যান্য তরল পদার্থ পান করা, এবং ব্যথা ও জ্বর কমানোর জন্য প্যারাসিটামল (এ্যসিটামিনোফেন) খাওয়ার মাধ্যমে এর চিকিৎসা করা হয়। প্যারাসিটামল ব্যবহার করা এ্যাসপিরিন বা ইবুপ্রোফেনের তুলনায় নিরাপদ, ব্যক্তির যদি গুরুতর ডেঙ্গু দেখা দেয় তবে এগুলো বিপজ্জনক হতে পারে। একজন নারী যদি গর্ভধারণ করে তবে এ্যাসপিরিন ও ইবুপ্রোফেন তার গর্ভে থাকা শিশুর জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে কিন্তু প্যারাসিটামল নিরাপদ।

ডেঙ্গু, পীত জ্বর, জিকা, বা চিকুনগুনিয়া রোধ করার উপায় একই

অসুস্থ্যতা রোধ করতে, মশার কামড় রোধ করুন এবং মশার বংশবৃদ্ধি রোধ করুন। পীত জ্বর রোধ করার জন্য একটি টীকা রয়েছে।



এই পাতাটি হালনাগাদ করা হয়েছে: ২৩ সেপ্টে ২০১৯